২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সুনামগঞ্জ বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র প্রধানমন্ত্রী উদ্বোধন করবেন আজ

স্টাফ রিপোর্টার
প্রায় ২০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত সুনামগঞ্জের ১৩২/৩৩ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র (পাওয়ার গ্রীড স্টেশন)’এর উদ্বোধন আজ (বুধবার)। সকাল ১০ টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে উপস্থিত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও বিশিষ্টজনদের সঙ্গে কথা বলে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে উন্নয়ন প্রকল্পটির উদ্বোধন করবেন। একই সঙ্গে রাঙামাটি, মাতারবাড়ি, বিয়ানীবাজার, জলঢাকা, শিকলবাহা, বারৈয়ারহাট, বরিশাল ও রামগঞ্জ বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। 
সুনামগঞ্জ শহরতলির ওয়েজখালিতে (ইকবাল নগরের পাশে) পাওয়ার গ্রীড স্টেশনের কাজ শেষ হয় ২০১৮ সালের মার্চ মাসে। মে মাসের ৩ তারিখ থেকে এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে পরীক্ষামূলক ভাবে বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু হয়। সুনামগঞ্জ শহর এবং দিরাই-শাল্লার প্রায় ৩০ হাজার গ্রাহক এরপর বিদ্যুৎ যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পান।
সাবস্টেশন থেকে বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু হবার পর ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে পড়তে হয়নি গ্রাহকদের। 
২০১২-১৩ সালে সুনামগঞ্জ শহরের হাজাীপাড়ার শামছুল আলম, ইব্রাহিমপুরের সৈয়দুর রহমান, মল্লিকপুরের আরজ আলী, হাজাীপাড়ার সুরুজ মিয়া, তাঁর ছেলে সজীব আহমদ, আরপিননগরের জাহানুর আলম, তেঘরিয়ার আকিকুর রহমান, বড়পাড়ার ইমদাদ হোসেন, জামতলার লিটন চৌধুরী ও টুটন চৌধুরীর ৫ একর ২৫ শতাংশ জমি ছয় কোটি ২০ লাখ আট হাজার ৫৮৩ টাকা মূল্যে অধিগ্রহণের মধ্য দিয়ে শহরতলির ওয়েজখালীতে এই পাওয়ার গ্রীড স্টেশনের কার্যক্রম শুরু হয়।
২০১৪ সালে দরপত্র প্রক্রিয়া শেষে একসঙ্গে দেশের ১০ টি স্থানে ৯৮৬ কোটি টাকা ব্যয়ে পাওয়ার গ্রীড স্টেশনের কাজ শুরু হয়।
নতুন পাওয়ার গ্রীড স্টেশনে ছাতক থেকে ১০৮ টি টাওয়ারের মাধ্যমে বিদ্যুৎ এসেছে। এই লাইনে এক লাখ ৩২ হাজার কিলোভোল্ট বিদ্যুৎ সঞ্চালন হচ্ছে। তাতে সিস্টেম লস কমেছে। লোড শেডিং কমেছে। গ্রাহকদের বিদ্যুৎ দেবার ক্ষমতা বেড়েছে।
পাওয়ার গ্রীড কোম্পানী অব বাাংলাদেশ লি. (পিজিসিবি)’এর পরিচালক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেন,‘এই প্রকল্পটির জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আবদার জানানোর পর তিনি বলেছিলেন, ওর আবদার ও সম্মান রক্ষা করতেই ওখানে সাবস্টেশন করতে হবে। তিনি সুনামগঞ্জের মানুষকে বঞ্চিত করেন নি। স্বপ্নের এই প্রকল্পটির উদ্বোধন আজ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে সুনামগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। প্রায় ২০০ কোটি ব্যয়ে এতো বড় একটি প্রকল্প সুনামগঞ্জবাসীকে উপহার দিয়ে কৃতজ্ঞতার বন্ধনে আবদ্ধ করলেন তিনি। এই প্রকল্পকে ঘিরে সুনামগঞ্জে শিল্প কারখানা গড়ে ওঠবে। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ হবে জেলা। কর্মসংস্থান হবে বেকারদের। নতুন প্রজন্মের জন্য একটি বড় উপহার দিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।’

ছড়িয়ে দিনঃ