সরকারি বাঙলা কলেজে পরিবহনও আবাসন ব্যবস্থা সংকটময়

নিজস্ব প্রতিবেদক,শাহরিয়ার মাসুদ

সরকারি বঙলা কলেজের ৩৫০০০ হাজার শিক্ষার্থীর যাতায়াতের জন্য বাস রয়েছে মাত্র একটি।তাও আবার শিক্ষার্থীদের পরিবহনে নিয়মিত ব্যবহার হয় না। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা হাজারো শিক্ষার্থীকে।এছাড়াও কলেজের আবাসন ব্যবস্থা ও অনেক সংকটময়। ৩৫০০০হাজার শিক্ষার্থীদের বিপরীতে একটি মাত্র হল রয়েছে এবং একটি নতুন হল নির্মাণধীন রয়েছে। শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে বিভিন্ন সময় যানবাহন সংকট ও আবাসন সংকট নিরসনের আশ্বাস দিলেও কার্যকর কোন পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি কলেজ কর্তৃপক্ষকে।

বাংলাদেশের অন্যতম শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সরকারি বাঙলা কলেজ । ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠার পর প্রতিষ্ঠানটি শিক্ষার আলোয় ছড়িয়ে যাচ্ছে স্ব-গৌরবে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে শিক্ষার্থীরা এসে শিক্ষা গ্রহণ করে এই গৌরবোজ্জল সরকারি বাঙলা কলেজে। ইন্টারমিডিয়েটের পাশাপাশি এখানে ১৮টি বিষয়ে অনার্স ,ডিগ্রীও মাষ্টার্স কোর্স চালু রয়েছে।

প্রতিবছর কেবল অনার্স লেভেলেই ৩ হাজার নবীনের আগমন ঘটে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে। এছাড়া ইন্টারমিডিয়েটে প্রায় ২ হাজার ৫০০ জন নবীনের আগমন ঘটে। ৩৫০০০হাজার শিক্ষার্থী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত যার বেশিরভাগই ঢাকা শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ক্যাম্পাসে আসে। তাদের যাতায়াতের জন্য একটি  বাস বরাদ্দ থাকলেও তা নিতান্তই নগন্য। ফলে শিক্ষার্থীদের লোকাল বাসে অতিরিক্ত ভাড়া দিয়ে কলেজে আসতে হয়।ব্যবস্থাপনা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী সাদমান ইসলাম বলেন,আমি সাভার থেকে আসি।আমার কলেজে আসতে প্রতিদিন ৭০টাকা খরচ হয়।আমাদের যদি কিছু কলেজ বাস দেওয়া হত। তাহলে আমাদের এই অতিরিক্ত টাকা খরচ হত না।তাছাড়া লোকাল বাসগুলো হাফ ভাড়া নিতে চায় না।

কয়েকজন শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের পর্যপ্ত আবাসন ব্যবস্থা নেই।যার কারনে আমাদেরকে  বিভিন্ন ম্যাচে ভাড়া দিয়ে থাকতে হয় এবং আমাদের অনেক টাকা খরচ হয়।

এমতাবস্থায় ক্যাম্পাসের নতুন বাস ও আবাসন সংকট দূর করার দাবি শিক্ষার্থীদের।

শিক্ষার্থীরা জানান, ‘নানান সময় বিভিন্ন মহল থেকে আশ্বাস পেয়েও নতুন বাস ও আবাসন  সংকট দূর হয়নি।’ এ সমস্যা সমাধানে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন কলেজের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

ছড়িয়ে দিনঃ