সন্তান জন্মদানে টিউলিপকে হয়রানি, অবশেষে ব্রিটিশ সংসদে প্রক্সিভোট

ব্রিটিশ পার্লামেন্টে যোগ হতে যাচ্ছে প্রক্সি ভোটিং। নিম্নকক্ষ হাউজ অফ কমন্সে এক বছরের জন্য পরীক্ষামূলকভাবে এই ভোটিং পদ্ধতি যোগ করা হবে। ব্রেক্সিট পার্লামেন্টে ভোট দেওয়ার জন্য লেবার এমপি টিউলিপ সিদ্দিকের সন্তান জন্মদান বিলম্বিত করার ঘটনার পর সাংসদদের মধ্যে প্রক্সি ভোটিংয়ের দাবি জোরদার হয়। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

চলতি মাসের মাঝের দিকে ব্রিটিশ পার্লামেন্টে প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে প্রস্তাবিত ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। সংসদের নিয়মানুসারে, ভোটদানের জন্য সশরীরে উপস্থিত থাকা আবশ্যক। কিন্তু ওইদিনই ছিল টিউলিপের সন্তান জন্মদান অপারেশনের জন্য নির্ধারিত দিন। বাধ্য হয়ে ভোটদানের জন্য তাকে সন্তান জন্মদানের তারিখ পেছাতে হয়।

উল্লেখ্য, টিউলিপ সিদ্দিক বাংলাদেশের জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনী। তিনি শেখ রেহানার মেয়ে ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাগ্নি।

টিউলিপকে প্রক্সি ভোট দিতে না দেওয়ার ঘটনায় সমালোচনার ঝড় ওঠে ব্রিটিশ সাংসদদের মধ্যে। প্রাথমিকভাবে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভদের কাছ থেকে ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছিল যে, টিউলিপ নিজে পার্লামেন্টে উপস্থিত না থেকে অন্য কাউকে তার ভোট দেওয়ার জন্য মনোনীত করতে পারবেন। কিন্তু পরবর্তীতে কনজারভেটিভরা জানান, ভোটদান করতে হলে টিউলিপকে সশরীরে পার্লামেন্টে উপস্থিত থাকতে হবে। এই ঘটনায় সাংসদদের তীব্র সমালোচনার শিকার হয়েছে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের পুরনো রীতি ও ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভরা।

এ ঘটনায় টিউলিপ বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক যে, জ্যেষ্ঠ রাজনীতিবিদরা একপাক্ষিক সুবিধা অর্জনের আশায় প্রক্সি ভোটিং কার্যকর বিলম্ব করছেন।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) হাউজ অফ কমন্স নেতা আন্ড্রেয়া লিডসম এক ঘোষণায় জানিয়েছেন, আজ (মঙ্গলবার) প্রক্সি ভোটিং চালুর সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। আগামী ২৮ জানুয়ারি হাউজ অফ কমন্সে এই বিষয়ক একটি বিল অনুমোদনের জন্য উপস্থাপন করা হবে।

লিডসম তার ঘোষণায় বলেন, আমি নিম্নকক্ষকে এটা জানাতে পেরে আনন্দিত যে, মাতৃত্ব, পিতৃত্ব ও দত্তক গ্রহণের মতো ঘটনায় প্রক্সি ছুটি বিষয়ে একটি বাস্তব বিলের প্রস্তাব উত্থাপিত হয়েছে। আগামী ২৮ জানুয়ারি বিলটির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে।

টিউলিপ নতুন ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় তার ও তার সন্তানের একটি ছবি টুইট করে লিখেন, ছয় দিনের রাফায়েলকে নিয়ে জরুরি এই প্রশ্ন দেখছি। হাউজ অফ কমন্সে ঐতিহাসিক #প্রক্সিভোটিংয়ের সূচনায় হ্যানসার্ডে উল্লেখিত হয়ে সে আনন্দিত। এটি একটি আবশ্যক (ও কালাতিক্রান্ত) পরিবর্তন। আমি এই পরিবর্তনকে স্বাগতম জানাই।

প্রসঙ্গত, টিউলিপের সন্তানের নাম রাখা হয়েছে রাফায়েল মুজিব সেইন্ট জন পার্সি।

উল্লেখ্য, গত গ্রীষ্মে টিউলিপের মতো একই ঘটনার শিকার হয়েছিলেন অপর এক সাংসদ জো সুয়িনসন। তার এক জরুরি প্রশ্নের প্রতিক্রিয়ায়ই প্রক্সি ভোটিং চালুর ঘোষণা দেন লিডসম।

প্রক্সিভোটিং চালু হলে, সংসদ সদস্যরা তাদের পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য অপর একজন সংসদ সদস্যকে মনোনীত করতে পারবেন।

ছড়িয়ে দিনঃ