প্রশংসিত ছবি দুদিন পরে কিভাবে নিষিদ্ধ হয়? – প্রশ্ন ফারুকীর

‘শনিবার বিকেল’ সিনেমা নিষিদ্ধ হওয়ার খবরটি ইতোমধ্যেই সবার জানা হয়ে গেছে। সেন্সর বোর্ড প্রথমে ছবিটি প্রদর্শনের অনুমতি দিলেও পরে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। জানানো হয়, মোস্তফা সরয়ার ফারুকী নির্মিত এই ছবিটি বাংলাদেশের শান্তিপ্রিয় জনপদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে পারে!

সেন্সর বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী প্রশ্ন রেখেছেন, ‘দুদিন আগে সেন্সর বোর্ডে প্রশংসিত হওয়া ছবি দুদিন পর নিষিদ্ধ হয় কিভাবে?’

ফারুকী বলেন, ‘আমি এখনো পর্যন্ত সেন্সর বোর্ডের কোন সিদ্ধান্ত জানি না। আগে চিঠি আসুক। দেখি তাতে কি লেখা থাকে। চিঠি পাওয়ার আগ পর্যন্ত আমরা কিছুই ভাবছি না। কারণ তারা প্রথমবার ছবিটি দেখে আমাকে ফোন করে প্রশংসা করেছিল।’

এরপর এই প্রতিবেদকের কাছে ফারুকী প্রশ্ন রাখেন, ‘দুদিন আগের প্রশংসিত হওয়া ছবি দুদিন পর কিভাবে নিষিদ্ধ হয়? সেটা কিভাবে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করে! এটা অবিশ্বাস্য ব্যাপার। এটা সত্যিই এক অদ্ভুত সময়। তবে আমরা নিয়মমাফিক আগাবো। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত কি হয়।’

‘এখানে কোন খেলা হচ্ছে’ বলে সংশয়ও প্রকাশ করেন ‘টেলিভিশন’ খ্যাত এই পরিচালক।

ফারুকীর বক্তব্যের প্রেক্ষিতে সেন্সর বোর্ডের সদস্য ইফতেখার উদ্দিন নওশাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘প্রশংসা করা হয়নি। সে [ফারুকী] ভালো সিনেমা বানিয়েছে এটা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই। ভালো সিনেমা মানে এর নির্মাণ ভালো সেটা বলা হয়েছিল।’

নওশাদ বলেন, ‘সেন্সর বোর্ড সচিব প্রথমবার ছবিটি দেখে একটা নোট দিয়েছিলেন। তথ্য মন্ত্রনালয়ের সচিব না দেখা পর্যন্ত ছবিটি পাশ না করাতে বলেছিলেন তিনি। পরে গত মঙ্গলবারে তথ্য সচিব আবদুল মালেক ছবিটি দেখেন। সেসময় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিবও তার সঙ্গে ছিলেন। তখন ছবিটি আটকানোর পক্ষে সবেই মত প্রদান করেন। কারণ বোর্ড মনে করছে, ভুলে যাওয়া একটি বিয়োগান্তক ঘটনা নতুন করে মনে করিয়ে দেওয়াটা ঠিক হবে না। এতে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট হতে পারে।’

জানা যায়, হলি আর্টিজান রেঁস্তোরায় ঘটে যাওয়া মর্মান্তিক সন্ত্রাসবাদের ঘটনা নিয়ে নির্মিত হয়েছে শনিবার বিকেল। তবে বিষয়টি গণমাধ্যমের কাছে এখনো পর্যন্ত স্বীকার করেননি পরিচালক ফারুকী।

বাংলাদেশ-ভারত-জার্মান এই তিনদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হয়েছে ‘শনিবার বিকেল’। বাংলা ছাড়াও ইংরেজি ভাষাতেও দেখানো হবে ছবিটি। ‘শনিবারের বিকেল’ ছবিতে অভিনয় করেছেন জাহিদ হাসান, পরমব্রত, তিশা এবং অস্কারে মনোনয়ন পাওয়া ফিলিস্তিনি অভিনেতা ইয়াদ হুরানি।

ছড়িয়ে দিনঃ