দৈনিক সকালবেলা সম্পাদকের স্বাস্থ্যের উন্নতি, কেবিনে হস্তান্তর

দৈনিক সকালবেলার সম্পাদক সৈয়দ এনামুল হক
স্টাফ রিপোর্টারঃ
রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে  (সাবেক আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন দৈনিক সকালবেলার সম্পাদক ও প্রকাশক সৈয়দ এনামুল হকের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। অক্সিজেন মাস্কসহ মেশিনপত্র অপসারণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেশিনপত্র খুলে কেবিনে হস্তান্তর করেছেন দায়িত্বরত চিকিৎকরা।
উল্লেখ্য, সৈয়দ এনামুল হক মঙ্গলবার রাতে হঠাৎ করে বুকে ব্যাথা অনুভব করলে তাকে মিরপুর হার্ট ফাউন্ডেশনে ভর্তি করা হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চিকিৎসকরা জানান তিনি হার্ট অ্যাটাক করেছেন এবং কিডনি সমস্যায় ভুগছেন। হার্ট ফাউন্ডেশনে কিডনির কোন চিকিৎসা না থাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালে পাঠানো হয় এবং রাত সাড়ে তিন টায় আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।
দৈনিক সকালবেলার সম্পাদক সৈয়দ এনামুল হকের সুস্থতার জন্য দৈনিক সকালবেলা পত্রিকার সকল কর্মকর্তা/কর্মচারী ও তার পরিবার সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন।
সৈয়দ এনামুল হকের  জন্ম ১৬ এপ্রিল ১৯৫৬ সালে মাদরীপুর জেলার শিবচর উপজেলার উমেদপুর গ্রামে। বাবা মরহুম ডা: সৈয়দ আবদুল মজিদ। জনাব হক বহুমূখী প্রতিভার অধিকারী। তিনি বাংলাদেশ বেতারের একজন ইংরেজী সংবাদ পাঠক। অত্যন্ত সদালাপী ও মিষ্টভাষী জনাব হক সকলের কাছেই প্রিয় একজন মানুষ ।
প্রেস ও ইলেক্ট্রনিকস মিডিয়া দু’জায়গাতেই জনাব এনামুল হকের সমান পদচারণা। তিনি বাংলাদেশ সংবাদ পাঠক সমিতির একাধিকবার সহ-সভাপতি ছিলেন।
১৯৭৯ সালে বেতারে বাংলা সংবাদ পাঠের মধ্য দিয়ে শুরু করলেও বেতার কর্তৃপক্ষের ইচ্ছায় ইংরেজি সংবাদ পাঠ শুরু করেন।
৮০’ এর দশকে তিনি  দু’টি জাতীয় দৈনিকের খুলনা সাংবাদিক ব্যুরো প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
তিনি দু দু’বার খুলনা সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি নির্বাচিত হয়ে সাংবাদিক সমাজকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে পেশাগত মান  উন্নয়নে উজ্জীবিত করেন।
সাংবাদিকতায় বিশেষ অবদানের জন্য বিভিন্ন সংগঠন তাঁকে স্বর্ণপদক ক্রেষ্ট প্রদান করে।
৯০’ এর দশকের গোড়ার দিকে লন্ডনে থাকালীন সময় তিনি বিবিসি বাংলা বিভাগের সাথে কিছুদিন Contributing broadcaster হিসেবে  কাজ করার সুযোগ পান। সে সময় ফারাক্কা বাধের উপর তথ্য ও উপাত্ত সমৃদ্ধ তার একটি প্রতিবেদন শ্রোতানন্দিত হয়েছিল।
বর্তমানে জনাব এনামুল হক বাংলাদেশ সংবাদপত্র মালিকদের সমিতি “বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদ” (বিএসপি) এর মহাসচিবের দায়িত্ব পালন করছেন।
তিনি ঢাকা আইনজীবি সমিতির একজন সক্রিয় সদস্য এবং দু’টি আইন গ্রন্থের প্রণেতা।
এছাড়াও তিনি দেশ ও আর্ন্তজাতিক বিভিন্ন সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। সর্বোপরি তিনি Lions club international এর  একজন  সক্রিয় সদস্য। কয়েকবার তিনি Lions Club of Dhaka Mirpur City’র সম্পাদক ও সভাপতি নির্বাচিত হন। দু’বার তিনি (Lions Club International District 315 B1 এর ZONE Chairman হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি Lions Club International এর সাউথ আফ্রিকা ও ইষ্ট এশিয়া ফোরামের কোলকাতা সম্মলনে অংশগ্রহণ করেন।
তিনি যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, শ্রীলংকাসহ মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশ সফর করেন। জনাব হক সাংবাদিক হিসেবে লন্ডনে House of commons এর গুরুত্বপূর্ণ Debate প্রত্যেক্ষ করার সুযোগ পান।
ছড়িয়ে দিনঃ