দশ জন নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করবেন আরিফ

রাকিবুল ইসলাম

বাংলাদেশ ও দক্ষিন এশিয়ায় শিশু গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান ” কিডস মিডিয়ার ” জন্য জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি।নিজ প্রচেষ্টায় দীর্ঘ চোদ্দ বছরের ক্যারিয়ারে দেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে নিজেকে ও নিজের কাজকে চিনিয়েছেন।

তরুন বয়সেই গনমাধ্যমের কাজের পাশাপাশি নিজেকে গড়ে তুলেছেন উদ্যোক্তা হিসেবে। বলা যায় সবক্ষেত্রে ই তিনি রেখেছেন নিজ গুন যোগ্যতার পরিচিতি। রানা প্লাজা,তাজরীন ফ্যাশনের মত বড় বিপর্যয় পরিস্থিতিতে কলম,ক্যামেরা ফেলে সেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজ করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বুঝিয়েছেন গনমাধ্যমের কাজের ফাঁকে অনেক দায়িত্বকে কতটা এড়িয়ে চলে অন্যরা। একজন আরিফ রহমান শিবলী এরমধ্যে নেপাল ভুমিকম্প,শ্রীলঙ্কার সুনামি ও ফিলিস্তিনের যুদ্ধ বিধস্ত শিশুদের পাশে দাঁড়িয়ে যেমন দুরসময়ের বন্ধু খ্যাতি পেয়েছেন তেমনি বাংলাদেশের সুনাম বাড়িয়েছেন বন্ধু রাস্ট্রগুলো’র কাছে। এইবার এই জনপ্রিয় মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব ও জনপ্রিয় তরুন উদ্যোক্তা আরিফ নিতে যাচ্ছেন নতুন এক পদক্ষেপ, নতুন উদ্যোক্তা তৈরি করবেন এমনটা ই আজ নিজ অফিসিয়াল ফেসবুকে ঘোষণা দেন দক্ষিন এশীয় অঞ্চলের এই জনপ্রিয় চাইল্ড মিডিয়া হেড। এই ব্যাপারে আজ এই প্রতিবেদকের সাথে ফোনে সাক্ষাৎ দেন তরুন প্রজন্মের অন্যতম আইকন খ্যাত আরিফ রহরমান শিবলী।

দৈনিক সকালবেলাঃ কেমন আছেন?
আরিফঃ আলহামদুলিল্লাহ! আগের চেয়ে কিছুটা ভালো। ড্রেসিং চলছে পাশাপাশি হাই এন্টিবায়োটিক সহ ওষুধ খাচ্ছি। তবে আশংকামুক্ত এখন।

দৈনিক সকালবেলাঃ কিডস মিডিয়া নতুন অফিসিয়াল যাত্রা কবে করছেন?
আরিফঃ ধন্যবাদ আপনার মুল্যবান প্রশ্নের জন্য। কিডস মিডিয়া এখন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রশংসনীয় হওয়ায় অবশ্যই এইটার কোয়ালিটি ধরে রাখা ই অনেক বড় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আপনি অবশ্য ই জানেন অস্ট্রেলিয়ার চাইল্ড একটি মিডিয়া এজেন্সির সাথে আমরা কাজ করবো এবং দেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের এক্সপার্ট টিম নিয়ে কাজ শুরু করবো। সেই হিসেবে সব গুছানো হচ্ছে। আমি জানি একটি প্রতিষ্ঠান যখন তুমুল জনপ্রিয় হয় আলোচিত হয় তখন তার ধারাবাহিকতা রক্ষা ই মুল চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। অবশ্য ই সব গুছিয়ে আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করা হবে।

দৈনিক সকালবেলাঃ গনমাধ্যমের পাশাপাশি একজন নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে রাতারাতি পেয়েছেন জনপ্রিয়তা কিভাবে সম্ভব হয়েছে?

আরিফঃ শুরু করছি দয়াময় আল্লাহর নাম নিয়ে। আল্লাহর প্রতি অগাধ বিশ্বাস রেখে ই কাজ শুরু করা এবং বাস্তবায়নের পথে চলা।আমার অভিজ্ঞতা ছিলও না কিন্তু অদম্য সাহস,চ্যালেঞ্জ গ্রহন, দ্রুত সিদ্ধান্ত গ্রহণ থেকে নিয়ে অনেককিছু নিজের ভিতর গড়েছি। পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বেশকিছু প্রশিক্ষণ নিয়েছি।

দৈনিক সকালবেলাঃ জীবনে এমনকিছু আছে যেটা কস্ট দিয়েছে?
আরিফঃ আমার ইচ্ছা ছিলও আমি সেনা মেজর হয়ে দেশের জন্য কাজ করবো পারিনি। পরম করুনাময় ও অসীম দয়ালু আল্লাহর রহমতে আমার অধীনে ই একজন মেজর দায়িত্ব পালন করছেন।আমার স্বপ্ন ছিলও জাতিসংঘের শান্তি মিশনে কাজ করার। সেইটাও পুরন হয়নি।তবে! ইনশা আল্লাহ সেই জাতিসংঘের মঞ্চে বিশ্বের নিপিড়ীত শিশুদের নিয়ে তাদের অধিকার,প্রত্যাশা সহ সব বিষয় নিয়ে কথা বলবো সরকারের সহায়তা নিয়ে।

দৈনিক সকালবেলাঃ দেশের তরুন তরুনীদের প্রধান সমস্যা বাড়ছে কিন্তু মুল সমস্যা কোথায় বলে নতুন জনপ্রিয় উদ্যোক্তা হিসেবে আপনি মনে করেন?
আরিফঃ এখনকার চাকুরী প্রত্যাশীদের মুল সমস্যা বাড়ছে এবং এইটা বাড়বে অদুর ভবিষ্যতেও। যদি বলেন কেন? আমি বলবো চাকুরী প্রত্যাশীর সংখ্যা থেকে নিয়ে উদ্যোক্তা নেই বাজারে। তাহলে চাকুরী দিবে কে এতো বেকারদের? যদি চাকুরী প্রত্যাশী হয় এক লাখ তার বিপরীতে উদ্যোক্তা থাকা উচিৎ দশ হাজার
কিন্তু তা তৈরি হচ্ছে না দ্যাটস ফ্যাক্ট। পাশাপাশি আপনি সিভি দেখতে বসুন নিজে ই বিরক্ত হবেন। কারন! সিভি তৈরি করতে পারেনা বেশীরভাগ তরুন তরুনী।

দৈনিক সকালবেলাঃ নতুন উদ্যোক্তাদের প্লাটফর্ম দিতে আপনি আগ্রহী আজ এমন একটি পোস্ট ফেসবুকে দিয়েছেন! লক্ষ্যটা যদি কিছুটা বলতেন?
আরিফঃ উদ্যোমী ও মাদকমুক্ত দশ জন তরুন তরুনী কে প্লাটফর্ম দেওয়া হবে। এদের কে গ্রুমিং করানো থেকে নিয়ে আত্ববিশ্বাস বাড়ানো সব ই থাকবে। পাশাপাশি একজন উদ্যোক্তা হতে গেলে অবশ্যই তার অর্থ থাকা দরকার।আগে সাক্ষাৎ নেওয়া হবে আগ্রহী প্রার্থীর অভিমত লক্ষ্য শুনবো তারপর তাকে নিয়ে কাজ শুরু করা হবে।

দৈনিক সকালবেলাঃ একজন উদ্যোক্তা হতে গেলে কি কি জানা উচিৎ বলে মনে করেন?
আরিফঃ প্রথমত অর্থ কত আছে, বাজারে কি সংকট আছে সেটা নিয়ে কাজ করা, মানবসম্পদ বিভাগ সম্পর্কে ধারণা থাকা উচিৎ, দরকারের চেয়ে অধিক জনবল পুজি নস্ট করে, চতুরমুখী হতে হবে, ভোক্তাকে দেওয়া কথা রাখতে হবে, আর কঠিন পরিশ্রমী হতে হবে।

দৈনিক সকালবেলাঃ যে দশজন নিবেন তারা কিভাবে কাজ করবেন?
আরিফঃ ধন্যবাদ মুল্যবান প্রশ্নের জন্য। দশজন উদ্যোক্তা একই প্লাটফর্ম ব্যাবহার করে কাজ করবেন। যেকোন সিদ্ধান্ত প্রতি মাসের বৈঠকে দশজন মিলে ই নিবেন তাদের প্রধান হিসেবে দায়িত্বে থাকবো আমি। প্রজেক্ট দেওয়া হবে সবাইকে আলাদা আলাদা পাশাপাশি সব ধরনের সাপোর্ট দেওয়া হবে।একা পথচলা কঠিন কিন্তু দশজন মিলে কাজ করাটা খুব সহজ।

দৈনিক সকালবেলাঃ আগ্রহীরা কিভাবে কথা বলতে পারেন আপনার সাথে?
আরিফঃ ar944164@gmail.com আগ্রহী প্রার্থীর বিস্তারিত দিবে যেখানে তার নাম,ঠিকানা,ফোন নাম্বার,পড়াশোনা,পাঠিয়ে দিলে তার সাক্ষাৎ তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি ফেসবুকের ইনবক্সেও দিতে পারেন আগ্রহীরা।

দৈনিক সকালবেলাঃ সম্প্রতি জার্মান ভিত্তিক একটি গণমাধ্যমে সাক্ষাৎ দিলেন যদি সেই ব্যাপারে কিছু বলতেন?
আরিফঃ কিডস মিডিয়া নিয়ে একটি প্রতিবেদন করতে ই তারা সাক্ষাৎ নিয়েছে।পাশাপাশি জার্মান থেকেও একটি এক্সপার্ট টিম কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

দৈনিক সকালবেলাঃ আজ তরুন প্রজন্মের আইকন খ্যাতি পেয়েছেন, কখনো ভেবেছেন এতোদুর আশা হবে?

আরিফঃ হা হা! এইটা কেউ ই জানে না। তিনি ই আল্লাহ যে সম্মানিত করেন মানবকুলে। আমার চেস্টা নিজের আত্ববিশ্বাস, নিজের প্রতি সম্মান, দেশের প্রতি ভালোবাসা আজ এইখানে পৌছাতে সক্ষম করেছে।

ছড়িয়ে দিনঃ