ডাকসুর ভোটকেন্দ্র বিতর্ক অবসানে গণভোটের প্রস্তাব

ডাকসুর ভোটকেন্দ্র বিতর্ক অবসানে গণভোটের প্রস্তাব

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোটকেন্দ্র বিতর্কের অবসানে গণভোটের প্রস্তাব দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী অধিকার মঞ্চ।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে এ প্রস্তাব দেন মঞ্চের মুখপাত্র মওদুদ মিষ্ট।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ২০১২ সালে শিক্ষার্থী অধিকার মঞ্চের কর্মী নূর বাহাদুর, তোয়াহা ফারুক, কাজী তৌফিক ইমাম, সাদমান সাকিব প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন রিট আবেদনকারীর পক্ষের আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। সংবাদ সম্মেলনে তারা ডাকসুকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকারের পক্ষে কথা বলার ও লড়াই করার সংগঠন হিসেবে দেখতে চান বলে জানান।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ২০১২ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি ডাকসু ভবনের সামনে সংবাদ সম্মেলন করে আমরা ডাকসু নির্বাচনের দাবিতে ধারাবাহিক আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছিলাম। মাসের পর মাস ধরে চলা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দীর্ঘদিনের মৃতপ্রায় ডাকসু ইস্যুটিকে পুনরুজ্জীবিত করতে সক্ষম হয়েছিলাম আমরা।

২০১২ সালে করা রিটের আগে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে আমরা উকিল নোটিশ পাঠিয়েছিলাম। সেই নোটিশের জবাব দেওয়ার জন্য দুই দফায় সময় বাড়ানো হলেও প্রশাসন তার জবাব দেয়নি।

তারপর যখন রিট করা হলো, কয়েক দফা সময় বাড়ানো হলেও তারও জবাব দেওয়া হয়নি। স্বৈরাচার কর্তৃপক্ষ তখন পরিবেশের দোহাই দিয়েছিল।

২০১২ সালে ডাকসু নির্বাচনের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের এই সংগঠন ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী অধিকার মঞ্চ’। ২০১২ সালে মঞ্চের মুখপাত্রসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫ জন শিক্ষার্থী ডাকসু নির্বাচন বিষয়ে উচ্চ আদালতে রিট করেন। সেই রিটের পরিপ্রেক্ষিতেই এবারের ডাকসু নির্বাচন হচ্ছে বলে মঞ্চের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

ছড়িয়ে দিনঃ